top of page

দেশের বাইরে চাকরী খুঁজতে কমন যে ভুলগুলো হয়ে থাকে





চাকরি খোঁজার সময় একাধিক কারণ আপনার সাফল্যকে প্রভাবিত করতে পারে। যদিও কিছু বিষয় আপনার নিয়ন্ত্রণের বাইরে থাকতে পারে তবুও আপনি চাকরি খোঁজার সম্ভাবনা উন্নত করতে নির্দিষ্ট পদক্ষেপ নিতে পারেন দেশের বাইরে একটি নতুন চাকরির জন্য আবেদন করার সময় আপনি যদি চান সাধারণ চাকরি খোঁজার ভুলগুলি এড়াতে পারলে আপনি নিজেকে অন্য প্রার্থীদের থেকে আলাদা করতে এবং চাকরি পাওয়ার সফলতা বাড়াতে পারেন।


অনেকেই নতুন সংস্কৃতি সম্পর্কে জানতে এবং বিশ্ব দেখতে বিদেশে কাজ করতে চায় । উন্নয়নশীল দেশগুলির বেশিরভাগ মানুষ ভালো বেতনের আশায় বিদেশে কাজ করতে চায় যাতে তারা তাদের পরিবারের দৈনন্দিন চাহিদা মেটানোর পাশাপাশি ভবিষ্যতের জন্য অর্থ সঞ্চয় করতে পারে । বিদেশে চাকরি নেয়ার চেষ্টা করার সময় আপনি যে সব বড় ভুলগুলি করতে পারেন আমাদের অভিজ্ঞতা থেকে তার একটি তালিকা দেয়ার চেষ্টা করছি।


আত্মবিশ্বাসী না থাকা:

দেশ বা দেশের বাইরে একটি প্রতিষ্ঠানে আবেদন করার সময় কম আত্মবিশ্বাস আপনার জন্য ক্ষতিকর হতে পারে। নিয়োগকর্তারা ভাবতে পারেন আপনি চাকরির উপযুক্ত না এবং তাঁরা আপনার থেকেও উপযুক্ত কাওকে পাবেন । আপনার নিজেকে একজন আত্মবিশ্বাসী এবং দক্ষ ব্যক্তি হিসাবে উপস্থাপন করা উচিৎ। এবং নিজের দক্ষতা অনুযায়ী কোনো প্রতিষ্ঠানে আবেদন করা উচিৎ।

অন্ধভাবে চাকরির জন্য আবেদন করা:

অন্ধভাবে চাকরীর আবেদন করবেন না। এটি আপনার সময় এবং প্রতিষ্ঠানের সময়ের একটি বড় অপচয়। অন্ধভাবে চাকরীর আবেদন করার অর্থ নিজের দক্ষতা অনুযায়ী চাকরীর আবেদন না করে সব ধরনের কোম্পানি তে আবেদন করা। অন্ধভাবে সব ধরনের চাকরির জন্য আবেদন না করে আপনার জন্য উপযুক্ত চাকরীর খোঁজ করে এপ্লাই করুন। এতে করে আপনার চাকরী লাভের সম্ভাবনা বেড়ে যাবে।


দক্ষতার প্রমাণপত্র না থাকা:


আপনি যেসব বিষয়ে দক্ষ সেসব বিষয়ের উপর সার্টিফিকেট বা অন্য কোনো প্রমাণপত্র রাখার চেষ্টা করুন। কোনো বিষয় বা দক্ষতার উপর সার্টিফিকেট আমাদের চাকরী লাভের সম্ভাবনা বাড়িয়ে দেয়। অপরদিকে আমরা অনেকসময় চাকরী পাওয়ার জন্য যেসব বিষয়ে দক্ষতা নেই সেসব বিষয় ও উল্লেখ করে থাকি। এই জন্য আমাদের চাকরী পাওয়ার পরে হারানোর সম্ভাবনা থাকতে পারে।


ইংরেজিতে পর্যাপ্ত দক্ষতা না থাকা:

দেশের বাইরে চাকরীর আবেদন সাধারণত ইংরেজি ভাষায় করতে হয়। আপনি ইংরেজি ভাষায় দক্ষ না হলে ইংরেজিতে দক্ষ কারো সাহায্য নিয়ে আবেদন করুন। একটি নির্ভুল আবেদনপত্র আপনার চাকরী পাওয়ার সম্ভাবনা বাড়িয়ে দেয়।


ইন্টারভিউ এর জন্য প্রস্তুতি না নেয়া:

চাকরীর ইন্টারভিউ তে যাওয়ার আগে আপনি যে কাজের জন্য যেতে চাচ্ছেন সে পদ সম্পর্কে আগে থেকে ধারণা নিয়ে যাবেন। আপনি যে চাকরি করতে চাচ্ছেন সে চাকরি কেনো আপনার প্রিয়,কেনো এই চাকরি করতে চাচ্ছেন,এই দেশেই কেনো যেতে চাচ্ছেন ইত্যাদি বিভিন্ন প্রশ্ন প্রায় অধিকাংশ ইন্টার্ভিউতে করা হয়ে থাকে। তাই ইন্টার্ভিউ দিতে যাওয়ার আগে সম্ভাব্য, সুন্দর এবং যুক্তিযুক্ত একটি ব্যাখ্যা আগে থেকে প্রস্তুত করে রাখুন। ইন্টারভিউ এর পর্যাপ্ত প্রস্ততি না থাকা আপনার চাকরি লাভের ক্ষেত্রে একটি বড় বাঁধা হয়ে দাঁড়াতে পারে। ইন্টারভিউ তে আপনার পূর্ববর্তী নিয়োগ কর্তাদের নিয়ে নেতিবাচক কিছু বলা থেকেও বিরত থাকুন।

এছাড়াও আমরা বিদেশে বসবাসকারী আত্মীয় স্বজন,বন্ধুদের সাহায্য নেয়ার ক্ষেত্রে অবহেলা করি।আপনি যে দেশে কাজের জন্য যেতে চাচ্ছেন সেখানে আপনার পরিচিত কেও থাকলে সেদেশের চাকরীর বাজার সম্পর্কে একটি বিষদ ধার‍ণা নিয়ে আবেদন করলে চাকরী লাভের সম্ভাবনা বেড়ে যায়।


12 views
bottom of page