top of page

বিদেশে চাকরির জন্য নিজেকে প্রস্তুত করার ৫ টি ধাপ

Updated: Jan 20




বিদেশে কাজ করা শুধুমাত্র একটি দুর্দান্ত অভিজ্ঞতাই না,এটি আপনার আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারও শুরু করার পাশাপাশি বিশ্বব্যাপি নতুন সুযোগ সৃষ্টি করে দেয়। অন্যান্য সব কাজের জন্য যেমন পূর্বপ্রস্তুতির প্রয়োজন তেমনি বিদেশে যাওয়ার আগেও প্রয়োজন কিছু প্রস্তুতির।

চলুন জেনে নেয়া যাক কাজের জন্য বিদেশে যাওয়ার আগে নিজেকে প্রস্তুত করার ৫ টি ধাপ।

১.ভিসা এবং ওয়ার্ক পারমিট :

আপনার বিদেশে কাজ করার স্বপ্ন আপনার ভিসা এবং ওয়ার্ক পারমিটের উপর নির্ভর করে। বিদেশে বৈধভাবে কাজ করার প্রথম ধাপ আপনার বৈধ কাগজপত্র এবং ভিসা। এছাড়াও আপনাকে আরো জানতে হবে আপনার ভিসা এবং কাজের মেয়াদ। অর্থাৎ আপনাকে বিদেশে যাওয়ার আগে জানতে হবে আপনি কতদিন সেখানে বৈধভাবে কাজ করতে পারবেন।

২.জীবনযাত্রার খরচ এবং বেতন নিয়ে গবেষণা করুন: বিদেশে যাওয়ার আগে দ্বিতীয়ত গুরুত্বপূর্ণ যে বিষয়টি বিবেচনা করতে হবে তা হলো অর্থ। আপনি প্রতি মাসে ঠিক কত টাকা উপার্জন করবেন তা হয়তো আপনার জানা না ও থাকতে পারে। তবে আপনাকে জানতে হবে কোন কাজের বেতন কত টাকা এবং সেখানকার জীবনযাত্রার খরচের সাথে সেটি সামঞ্জস্যপূর্ণ কিনা। সমস্ত মাসিক খরচ যেমন ভাড়া, বিল, ট্যাক্স, ইত্যাদি পরিশোধ করার পরে আপনার কাছে কত টাকা অবশিষ্ট থাকবে তা আপনাকে জানতে হবে।

৩.থাকার যায়গা খুঁজে বের করুন: আপনি যদি একটি নির্দিষ্ট শহরে থাকার চিন্তা করেন, তাহলে সেখানে একটি চাকরি এবং থাকার জায়গা খুঁজে পাওয়া সহজ হবে কিনা তা নিয়ে গবেষণা করুন। সেখানকার স্থানীয় লোকজনের দৈনন্দিন জীবনযাত্রা সম্পর্কে জানার চেষ্টা করুন এবং এটি আপনার বাজেট এবং প্রত্যাশার উপর নির্ভর করে কিনা তা পরীক্ষা করুন। বিদেশে যাওয়ার আগেই আপনি একটি চাকরীর ব্যবস্থা করতে পারলেও চেষ্টা করুন থাকার ব্যবস্থা করে যাওয়ার।

৪.যেকোনো কঠিন পরিস্থিতির জন্য নিজেকে প্রস্তুত করুন: বিদেশে যেকোনো কঠিন পরিস্থিতির জন্য নিজেকে প্রস্তুত রাখা বুদ্ধিমানের কাজ। আপনার বেতনের থেকে প্রতি মাসে কিছু টাকা সঞ্চয় করুন। আপনি যেখানে থাকছেন সেখানের চাকরীর বাজার বুঝার চেষ্টা করে সে অনুযায়ী দক্ষতা অর্জনের চেষ্টা করুন। যাতে করে কখনো আপনার চাকরী চলে গেলে খুব দ্রুত নতুন চাকরী পেতে সমস্যা না হয়।

৫.ভাষা ও সংস্কৃতি সম্পর্কে জানুন: কোনো দেশে যাওয়ার আগে সে দেশের ভাষা ও সংস্কৃতি সম্পর্কে ধারণা নিয়ে গেলে সেখানে গিয়ে খাপ খাওয়াতে সুবিধা হয়। এছাড়া কোনো দেশের ভাষা না জানলে সেখানে গিয়ে কাজ পেতে অসুবিধা হওয়ার পাশাপাশি স্বাভাবিক জীবনযাপনেও সমস্যা হতে পারে।

আপনি কাজের জন্য বিদেশে যেতে চাইলে হুট করেই সিদ্ধান্ত না নিয়ে আগে থেকেই প্রস্ততি নিয়ে এরপরে যান এতে আপনার কাজ পেতে সুবিধা হওয়ার পাশাপাশি নতুন পরিবেশে খাপ খাওয়ানোও সহজ হবে। আপনাদের বিদেশে যাওয়ার প্রস্ততিতে আমাদের এই পোস্ট কাজে লাগবে বলে আশা করছি।

6 views
bottom of page