top of page

কসোভো-ইউরোপের সম্ভাবনাময় গন্তব্য

Updated: Mar 24

কসোভো হল ইউরোপ এর বলকান অঞ্চলের একটি রাষ্ট্র। আর এটি পূর্বে  সার্বিয়ার একটি প্রদেশ ছিল।প্রদেশ টি ১৯৯৯ সালের থেকে জাতিসংঘ প্রশাসনের অধীনে রয়েছে আর ২০০৮ সালে এটি স্বাধীনতা লাভ করে । মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও  যুক্তরাজ্য সহ বেশ কিছু দেশ কসোভো কে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে আর কসোভোর সীমন্তে রয়েছে মনটি নিগ্রো,আলবেনিয়া ও মেসিডোনিয়া অবস্থিত।আর এই দেশের জন সংখ্যা ১৮ লক্ষ। আর এদের বেশির ভাগ মানুষই আলবেনিয়।দেশটির সবচেয়ে বড় শহর হল ক্রিস্টিনা।বহির্বিশ্বের সহায়তায় দেশটিকে ইউরোপের আদলে সাজাতে চেষ্টা করা হচ্ছে।রাজধানী প্রিস্টিনা ঘিরেই দেশটিতে উন্নয়ন হচ্ছে। দেশটির নারী প্রেসিডেন্ট ড. ওভাসি ওসমানী দেশটিকে ইউরোপীয় ইউনিয়নের অন্তর্ভুক্ত করার চেষ্টা করছেন।





২০২৪ সালের জানুয়ারী মাস থেকে ইউরোপের অন্য দেশগুলোতে কসোভো নাগরিকরা ভিসা ছাড়া যেতে পারবেন, সেখানে কাজ করতে পারবেন, এমন আইন পাস হয়েছে। এতে এদের তরুণরা ইউরোপের অন্যান্য দেশে পাড়ি জমাচ্ছে। এতে কসোভোর প্রচুর অভিবাসী শ্রমিক দরকার পড়ছে। বাংলাদেশ যেহেতু শ্রমিক রপ্তানিকারক দেশ, তাই বাংলাদেশ এ সুযোগটি নিতে পারে।

আপনারা যারা কসোভো যাবেন তারা বাংলাদেশের সরকার  কর্তৃক যে সকল এজেন্সি আছে তাদের মাধ্যমে যেতে পারেন। আবার আপনি কসোভো যেতে চাইলে সরাসরি চাকরির

আবেদন করে তারপরেও যেতে পারেন। সরাসরি চাকরির আবেদন করে যেতে interview এর মাধ্যমে চাইলে নিতে পারেন প্রবাসীর consultancy। consultancy পেতে আবেদন করুন-


 

এখন বেসরকারিভাবে শ্রমিক আসছে। কিন্তু সঠিক দিক নির্দেশনার অভাবে বেশিরভাগ কসোভো থাকতে চাইছেন না কসোভোকে ট্রানজিট পয়েন্ট হিসেবে ব্যবহার করছে বাংলাদেশ থেকে বৈধ পথে আসা শ্রমিকরা।চলে যাচ্ছে অন্য কোনো দেশে এবং হয়ে যাচ্ছে অবৈধ। এখানেই শেষ নয়, একবার যারা ইউরোপে অবৈধ হিসাবে নাম লিখাবেন, তারা ইউরোপের কোন দেশে বৈধভাবে কাজের সুযোগ পাবেন না। অনেকে তা না জেনেই বন্ধু বান্ধবের কথায় পাড়ি জমান অবৈধ পথে।


কসোভোর শ্রম আইন অনুযায়ী, বেশীর ভাগ শ্রমিকদের বেতন মাসে ৪৫ হাজার থেকে ৬৫ হাজার টাকা। শ্রমিকদের থাকার ব্যবস্থা, দুপুরের খাবার এবং চিকিৎসা বীমা মালিকদের করতে হয়। এছাড়া এখানে খাবার ও অন্যান্য জিনিসপত্র ইউরোপের অনন্য যে কোন দেশের তুলনায় সস্তা। যা আপনাকে এখানে বেশ ভালোভাবে থাকতে সাহায্য করবে।  এভাবে ২ বছর থাকলে পরিবারসহ থাকার অনুমতি পারবেন। ২ বছর পর এই অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে ইউরোপ এর অন্য দেশে সহজেই কাজ নিয়ে যেতে পারবেন। আবার ৫ বছর এখানে থেকে একবার এ PR এর জন্য আবেদন ও করতে পারবেন কসোভো থেকে। এই সুযোগ আপনি ইউরোপ এর অনন্য দেশ থেকে সহজে পাবেন না।


আমাদের পরামর্শ থাকবে, যারা এখানে আসবেন, ভালো করে জেনে-শুনে আসবেন।আসার পর এখানেই থাকুন। বেতন একটু কম হলেও আধুনিক মুসলিম পরিবেশে ভালোই থাকবেন।

সবচেয়ে বড় কথা, বৈধভাবে অভিবাসী হয়ে বসবাস করাই শ্রেয়।


আরও জানতে ফোন করুন- 01949555888 or 01913245235 নম্বরে

 

 

423 views

Comentarios


bottom of page